হযরত মুয়াবিয়া (রা) হইতে বর্ণিত হইয়াছে, তিনি বলিয়াছেন, রাসূল (সঃ) বলিয়াছেনঃ যে লোক পুলক অনুভব করে এই কাজের যে, লোকেরা তাহার সম্মানার্থে দাঁড়াইবে, সে যেন জাহান্নামে নিজের আশ্রয় স্থল বানাইয়া লয়। (তিরমিযী, আবু দায়ূদ, ইবনে মাজাহ)

সাহাবীদের নিকট রাসূল (সঃ) অপেক্ষা অধিক প্রিয় ব্যক্তি আর কেহ ছিল না। কিন্তু তাহা সত্ত্বেও তিনি যখন দৃশ্যমান হইতেন ও তাঁহারা তাঁহাকে দেখিতে পাইতেন, তখন তাঁহারা দাঁড়াইতেন না। কেননা তাঁহারা জানিতেন যে, রাসূল (সঃ) ইহা খুবই অপছন্দ করেন।

ব্যাখ্যাঃ হাদীসের মূল বক্তব্য সুস্পষ্ট। মানুষ মানুষের প্রতি সম্মান প্রদর্শন ও প্রকাশ করিবে, ইহা স্বাভাবিক। কিন্তু সেই সম্মান প্রদর্শনের জন্য যদি দাঁড়ানো হয় এবং সেই দাঁড়ানোয় কেহ যদি নিজের পুলক ও আনন্দ বা গৌরব বোধ করে, তবে সে লোকদের উপর নিজের প্রভুত্ব প্রতিষ্ঠার ইচ্ছুক গণ্য হইবে। স্পষ্ট মনে হইবে, লোকেরা তাহাকে প্রভু বা মনিব মনে করুক, ইহাই সে চায়। আর এইরূপ মনোভাবই অত্যন্ত মারাত্মক। এই গৌরব বোধই মানুষকে জাহান্নামে লইয়া যাওয়ার জন্য যথেষ্ট। হাদীসের ভাষা হইতে বোঝা যায় যে, এই ব্যক্তি নিজের গৌরব বোধের কারণেই জাহান্নামে যাইতে বাধ্য হইবে এবং সে জন্য সেই দায়ী।