অনুচ্ছেদঃ শরীর এলিয়ে দেয়া

আবদুল্লাহ ইবনে যায়েদ ইবনে আসেম আল-মাযিনী (রাঃ) থেকে বর্ণিতঃ

আমি নবী (সাঃ)-কে তাঁর এক পা অপর পায়ের উপর রেখে শায়িত অবস্থায় দেখেছি। -(বুখারী, মুসলিম, আবু দাউদ, নাসাঈ, তিরমিযী, তাহাবী)

মিসওয়ার (রাঃ)-র কন্যা উম্মু বাকর (র) থেকে বর্ণিতঃ

তিনি বলেন, আমি আবদুর রহমান ইবনে আওফ (রাঃ)-কে তার এক পায়ের উপর অপর পা তুলে শুয়ে থাকতে দেখেছি।

অনুচ্ছেদঃ উপুড় হয়ে শোয়া।

ইবনে তিখফা আল-গিফারী (র) থেকে বর্ণিতঃ

তার পিতা তাকে অবহিত করেন যে,তিনি
ছিলেন আসহাবে সুফফার সদস্য। তিনি বলেন, একদা শেষ রাতে আমি মসজিদে ঘুমন্ত অবস্থায় ছিলাম। আমি উপুড় হয়ে ঘুমে বিভোর অবস্থায় একজন আগন্তুক আমার নিকট এলেন। তিনি আমাকে তাঁর পায়ের সাহায্যে নাড়া দিয়ে বলেনঃ ওঠে, এই উপুড় হয়ে শোয়ায় আল্লাহ অসন্তুষ্ট হন। আমি মাথা তুলে দেখি যে, নবী (সাঃ) আমার শিয়রে দাঁড়িয়ে। -(আবু দাউদ, নাসাঈ, ইবনে মাজাহ, আহমাদ)

আবু উমামা (রাঃ) থেকে বর্ণিতঃ

নবী (সাঃ) মসজিদে উপুড় হয়ে শুয়ে থাকা এক ব্যক্তির নিকট দিয়ে যেতে তাকে নিজ পায়ের দ্বারা আঘাত করে বলেনঃ ওঠো, এটা তো জাহান্নামের অধিবাসীর শয়ন। (ইবনে মাজাহ)

অনুচ্ছেদঃ কেবল ডান হাতেই আদানপ্রদান করবে।

সালেম (র) থেকে বর্ণিতঃ

তিনি বলেন, নবী (সাঃ) বলেছেনঃ কেউ যেন তার বাম হাতে পানাহার না করে? কেননা শয়তান তার বাম হাতে পানাহার করে। রাবী বলেন, নাফে (র) তাতে আরো যোগ করেন যে, বাম হাতে কিছু গ্রহণও করবে না এবং বাম হাত দ্বারা কিছু দিবেও না। -(মুসলিম, আবু দাউদ, তিরমিযী)

অনুচ্ছেদঃ বসার সময় জুতাজোড়া কোথায় রাখবে?

ইবনে আব্বাস (রাঃ) থেকে বর্ণিতঃ

কোন ব্যক্তি যখন বসবে তখন তার জুতাজোড়া তার পাশেই (খুলে) রাখবে। এটাই সুন্নাত নিয়ম। (আবু দাউদ)

অনুচ্ছেদঃ শয়তান খড়কুটা অন্যান্য জিনিস নিয়ে এসে তা বিছানার উপর ছড়িয়ে দেয়

আবু উমামা (রাঃ) থেকে বর্ণিতঃ

তোমাদের কারো স্ত্রী তার জন্য বিছানা পাতার পর শয়তান এসে তাতে খড়কুটা, নুড়িপাথর বা অন্য কিছু ছড়িয়ে দেয় যাতে সে তার স্ত্রীর উপর অসন্তুষ্ট হয়। সে (তার বিছানায়) এগুলো দেখতে পেলে যেন তার স্ত্রীর উপর অসন্তুষ্ট না হয়। কারণ এটা শয়তানের কারসাজি।

অনুচ্ছেদঃ কেউ বেষ্টনীবিহীন ছাদে ঘুমালে।

আবদুর রহমান ইবনে আলী (র) থেকে বর্ণিতঃ

নবী (সাঃ) বলেনঃ কেউ বেষ্টনীবিহীন ছাদে রাতে ঘুমালে (এবং কোন দুর্ঘটনা ঘটলে) তার সম্পর্কে (আল্লাহর) কোন যিম্মাদারি নাই।

আলী ইবনে উমারা (র) থেকে বর্ণিতঃ

আবু আইউব আনসারী (রাঃ) এলে আমি তাকে নিয়ে উন্মুক্ত ছাদে উঠলাম। তিনি নেমে এসে বলেন, আমি এখানে রাত কাটালে আমার ব্যাপারে (আল্লাহর) কোন যিম্মাদারি নাই।

মহানবী (সাঃ)-এর একজন সাহাবী থেকে বর্ণিতঃ

নবী (সাঃ) বলেন কেউ উন্মুক্ত ছাদে ঘুমালে এবং তা থেকে পতিত হয়ে নিহত হলে তার ব্যাপারে কোন দায়দায়িত্ব নাই। কেউ ঝঞ্ঝা বিক্ষুব্ধ অবস্থায় সমুদ্রভ্রমণে গিয়ে নিহত হলে তার ব্যাপারেও কোন দায়দায়িত্ব নাই। (আহমাদ)